Web-Stat web tracker মালয়েশিয়ার সাবেক প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে অর্থপাচার সম্পর্কিত নতুন অভিযোগ - Dhaka Report
আন্তর্জাতিক

মালয়েশিয়ার সাবেক প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে অর্থপাচার সম্পর্কিত নতুন অভিযোগ

ডেস্ক রিপোর্ট: মালেশিয়ার সাবেক প্রধানমন্ত্রী নাজিরের বিরুদ্ধে বুধবার কয়েকশ কোটি ডলালের আথিক কেলেঙ্কারির সঙ্গে জড়িত ছিল বলে নতুন অভিযোগ আনা হয়েছে। আর্থিক কেলিংকারিতে জড়িত থাকার অভিযোগের কারণে তার জনপ্রিয়তার নামে এবং তিনি গত মে মাসে নির্বাচনে পরাজিত হন।

সাবেক এই প্রধানমন্ত্রীকে কুয়ালালামপুরের একটি অাদালতে হাজির করা হয়। এ সময়ে তার বিরুদ্ধে অর্থ পাচার সম্পর্কিত নতুন আরো তিনটি অভিযোগ আনা হয়। তবে তিনি নিজেকে নির্দোষ দাবি করেন।

প্রতিটি অভিযোগের জন্য তার ১৫ বছর পর্যন্ত জেল হতে পারে বলে জানা গেছে। খবরটি বার্তা সংস্থা এএফপি’র। এর আগে গত মাসে প্রেফতারের পর নাজিবের বিরুদ্ধে অর্থ পাচার সম্পর্কিত যেসব অভিযোগ আনা হয় সেসব অভিযোগের প্রত্যেকটির জন্য আর ২০বছর পর্যন্ত জেল হতে পারে। তিনি সেসব অভিযোগের সবগুলোই অস্বীকার করেন।

মালয়েশিয়ার নতুন সরকার তার বিরুদ্ধে আনা রাষ্ট্রীয় তহবিল ১ এমডিবি থেকে শত কোটি মার্কিন ডলার অবৈধভাবে নুটের অভিযোগগুলোর তদন্ত করছে। এই তহবিলটি তিনি দেখাশুনা করতেন। জনাকীর্ণ আদালত কক্ষে তার বিরুদ্ধে উত্থাপিত তিনটি নতুন করে তিন টি অভিযোগ শোনানো হয়। এর পর তাকে এই অভিযোগগুলো বুঝেছেন কিনা তা
জিজ্ঞাসা করা হয়।

জবাবে নাজিব বলেন, আমি বুঝেছি।

প্রতিটি অভিযোগ এসআরসি ইন্টারন্যাশনাল সঙ্গে সম্পকর্কিত । এটি মূলত ১ এমডিবি থেকে শত কোটি মার্কিন ডলার অবৈধভাবে লুটের অভিযোগগুলোর তদন্ত করছে। এই তহবিলটি তিনিই দেখাশুনা করতেন।

জনাকীর্ণ আদালত কক্ষে তার বিরুদ্ধে উত্থাপিত তিনটি নতুন অভিযোগ শোনানো হয়। এর পর তাকে এই অভিযোগ এসআরসি ইন্টারন্যাশনাল সঙ্গে সম্পর্কিত। এটি মূলত ১ এমডিএম এর অধীনে একটি জ্বালানী কোম্পানি।

ওয়াল স্ট্রিট জার্নালের এক তদন্তে দেখা গেছে, কোম্পানিটি থেকে প্রায় এক কোটি মার্কিন ডলার নাজিবের ব্যক্তিগত ব্যাংক একউন্ট পাচার করা হয়েছে।

কয়েক বছর আগে এক তদন্তে নাজিবের ব্যক্তিগত ব্যাংক একাউন্টে রহস্যজনকভাবে ৬৮ কোটি ১০ লাখ মার্কিন ডলার পাচার করা হয়েছিল, এটি তার একটি অংশ। অর্থ পাচারের ঘটনায় মালয়েশিয়ার ব্যপক বিক্ষোভ হয়

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *